বেনাপোল দিয়ে ভারতে পাচার হওয়া দুই নারীকে দেশে ফেরৎ

ভাল কাজের প্রলোভনে পড়ে দালালের মাধ্যমে ভারতে পাচার হওয়া দুই বাংলাদেশী নারীকে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে দেশে ফেরত পাঠিয়েছে ভারতীয় পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২৩শে সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে তাদের হস্তান্তর করে।

ফেরত আসা নারীরা হলেন, যশোরের মনিরামপুর থানার নোয়ালী গ্রামের আব্দুস সামাদের মেয়ে খাদিজা খাতুন শাপলা (২৩) ও নড়াইল জেলার কালিয়া থানার বেন্দারচর গ্রামের আব্দুল মান্নানের মেয়ে আলোমতি খাতুন (২৪)।

ফেরত আসা খাদিজা খাতুন বলেন সে ভালো কাজে আসায় ভারত যায় দালালের মাধ্যেমে। সে দেশের ব্যাঙ্গালুর শহরে বাসা বাড়ির কাজ করার সময় সে দেশের পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। দীর্ঘ ৫ বছর জেল খেটে আজ দেশে ফিরছি।

অপরদিকে আলোমতি খাতুন ৪ মাস জেল খেটে দেশে আসে বলে সে জানায়।
বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ওসি আহসান হাবিব বলেন, দালালদের খপ্পরে পড়ে এরা ভারত যায় সীমান্তের অবৈধ পথে। তারা সেদেশের পুলিশের কাছে ধরা পড়ে। এরপর তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলে পাঠায়। জেল থেকে বেসরকারী ‘রিটানসোল’ নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে এনে তাদের শেল্টার হোমে রাখে। আজ তারা বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যেমে দেশে এসেছে।

জাস্টিস এন্ড কেয়ার এর ফিল্ড ফ্যাসিলেটেটর রোকেয়া খাতুন বলেন, ফেরত আসা দুই নারীকে দুই দেশের এনজিও প্রতিষ্ঠান সরকারের সাথে যোগাযোগ করে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনা হয়। ইমিগ্রেশন ও বেনাপোল পোর্ট থানার আনুষ্ঠানিকতা শেষে যশোর নিয়ে যাওয়া হবে। পরে তাদের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে জানান ফিল্ড ফ্যাসিলেটেটর রোকেয়া খাতুন।