গাংনীতে প্রবাসির মরদেহ উদ্ধার,পাল্টা-পাল্টি অভিযোগ

রবজেল হোসেন (৪৫) নামের এক প্রবাসীর গলায় ফাঁস লাগানো মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার সকালে গাংনী থানা পুলিশের একটি টীম মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। এদিকে রবজেলকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবী করেছেন তার ছেলে টুটুল। অপরদিকে রবজেল হোসেনের ভাই শহিদুলের দাবী স্ত্রীর সাথে মনোমালিন্যের জেরে সে আত্মহত্যা করেছে।

রবজেল গাংনী উপজেলার খাসমহল গ্রামের মৃত আবের আলীর ছেলে।নিহত রবজেলের ছেলে টুটুল জানান, বাবা রবজেলের সাথে চাচা শহিদুল ইসলামের টাকা লেন দেন ছিল। এনিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে মা বেলী খাতুনকে মারধর করে। অসুস্থ মাকে গাংনী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ সুযোগে চাচা শহিদুল বাবাকে হত্যা করতে পারে।

নিহত রবজেলের ভাই শহিদুল হানান, টাকা নিয়ে দুই ভায়ের মধ্যে যে দ্ব›দ্ব ছিল সেটি অনেক আগেই মিমাংসা হয়েছে। সম্প্রতি রবজেলের সাথে স্ত্রী বেলীর টাকা পয়সা নিয়ে ঝগড়া বিবাদ ছিল। এনিয়ে স্ত্রী বেলী গাংনী থানায় তার বিরুদ্ধে একটি নারী নির্যাতনের অভিযোগও দায়ের করে। কয়েকদিন আগে রবজেলের বাক্স থেকে টাকা চুরির ঘটনা ঘটে। এ কারণেও সে আত্মহত্যা করতে পারে।

গাংনী থানার ওসি বজলুর রহমান জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশ উদ্ধার করে মেহেরপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্ত রিপোর্ট পাবার পর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।