দৌলতপুরে ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পারায় প্রাণ দিলেন গৃহবধূ

কুষ্টিয়া দৌলতপুরে ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পারায় রশুনা খাতুন(৪০)নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন।
মঙ্গলবার সকাল ১০টার সময় উপজেলার ফিলিপনগর ইউপির সিরাজনগর গ্রামের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

 

নিহত গৃহবধূ একই এলাকার দিনমজুর ইয়ার আলীর স্ত্রী। তাদের সংসারে দুই মেয়ে ও এক ছেলে সন্তান রয়েছে।

 

নিহত গৃহবধূর স্বামী ইয়ার আলী জানান, অভাবের কারণে কয়েকটি এনজিও এবং স্থানীয় সমিতি থেকে প্রায় দুই লাখ টাকা ঋণ নিয়ে বসতঘর নির্মাণসহ ব্যাবসা করেন তারা।

 

প্রতিদিন ও সপ্তাহে কিস্তির টাকা জমা দেয়ার কথা; কিন্তু করোনায় ও বেশি অভাবগ্রস্থ হয়ে পড়ায় সময়মতো কিস্তি পরিশোধ করতে সমস্যা দেখা দেয়। তবে এনজিও ও সমিতির কর্মকর্তারা প্রতিদিন কিস্তি আদায়ের জন্য মানসিক নির্যাতন করতেন তাদের দুজনকে।
মঙ্গলবার এনজিওর কিস্তির টাকা যোগাড় করতে ব্যার্থ হয়ে লজ্জা ও অপমানের ভয়ে গৃহবধূ রশুনা নিজের কক্ষে গলায় রশি পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

 

ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য উজ্জল হোসেন বলেন, কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পেরে আত্মহত্যা করা খুব দুঃখজনক। অসহায় পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে সহযোগিতার আশ্বাস দেন তিনি।

 

দৌলতপুর থানার ওসি(তদন্ত) শফিকুর রহমান বলেন, ঘটনাটি দুঃখজনক। নিহতের কোন বাদী না থাকায় গৃহবধূর মৃতদেহ দাফনের জন্য পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।