দামুড়হুদায় মৌ খামারে দুবৃত্তদের আগুন: ৮টি বক্স পুড়ে ছাই

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদার হাতিভাঙ্গা-মুক্তারপুর মাঠে পাতা মধু সংগ্রহকারীর জানারুল বাহাদুরের মৌ খামারের ৮টি মৌ বক্স্র পুড়িয়ে দিয়েছে দুবৃত্তরা। বৃহস্পতিবার রাতের কোন এক সময় দুবৃত্তরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। এতে তার ৭০হাজার টাকার মত ক্ষতি হয়েছে।

 

মধু সংগ্রহকারী মৌ খাারি জানারুল উপজেলার সীমান্তবর্তী কুতুবপুর গ্রামের শাহাবুদ্দীন বাহাদুরের ছেলে।
জানারুল বাহাদুর জানান, সে দীর্ঘ চাঁর বছর ধরে বিভিন্ন মৌসুমে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের মাঠের বক্স বসিয়ে মৌ খামার গড়ে সেখান থেকে মধু সংগ্রহ করে থাকে।

 

এরই ধারাবাহিকতায় সে উপজেলার হাতিভাঙ্গা-মুক্তারপুর মাঠে ব্যাপক মিষ্টি কুমড়ার চাষ হওয়ায় চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসের ৫তারিখে ঐ মাঠের একটি বাগানে ৫৭টি মৌ বক্স বসিয়ে খামার গড়ে মধু সংগ্রহ করে আসছিল। সারাদিন সে খামারে থাকলে ও সন্ধায় বাড়ী চলে যায়।

 

এমন অবস্থায় শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে খামারে এসে দেখতে পায় তার ৮টি মৌ বক্স্র কে বা কাহারা পুড়িয়ে দিয়েছে। ঐ বক্সের কাছে আরসির খালি পোড়া বোতল পড়ে ছিল তার ধারনা ডিজেল ঢেলে দিয়ে ঐ বক্সে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। এতে তার ৭০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে সে জানান।

 

দামুড়হুদা উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিধ মনিরুজ্জামান বলেন, দামুড়হুদা উপজেলার বিভিন্ন মাঠে কৃষি দুবৃত্যায়ন ঘটছে। দুবৃত্তরা বিভিন্ন সময় মাঠের ফসল কেটে দিয়ে কৃষকদেরকে সর্বশান্ত করে দিচ্ছে। গত রাতে হাতিভাঙ্গা-মুক্তারপুর মাঠে পাতা মৌ খামারের ৮টি বক্স পুড়িয়ে দিয়েছে দুবৃত্তরা। মধু জাতীয় সম্পদ মধু বিদেশে রপ্তানি করা হয়ে থাকে। এই জাতীয় সম্পদ নষ্ট করতে ও তারা দ্বিধাবোধ করছেনা।

 

এই কৃষি দুবৃত্যায়ন রোধে চাষিদেরকে মাঠে পাহারা বসানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের খুজে বেরকরে এদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।ক্ষতিগ্রস্থ মৌ খামারি জানারুলকে উপজেলা পরিষদের ফান্ড থেকে ক্ষতিপুরনের ব্যবস্থা করা হবে বলে ও তিনি জানান।