ভূরুঙ্গামারীতে নারীর মূখ ঝলসে যাওয়ায় কবিরাজসহ আটক ২

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে ১১ অক্টেবর সোমবার এক মহিলা কবিরাজের চিকিৎসায় এক নারীর সমস্ত মূখ ঝলসে গেছে।ঘটনা ঘটে উপজেলার সদর ইউনিয়নে দেওয়ানের খামার গ্রামের প্রাক্তন লাকী সিনেমা হলের পাশে রাশেদুন্নবী বুলু মিয়ার স্ত্রী হাসিনা বেগমের সাথে।স্থানীয়রা জানায় নারী কবিরাজ ছকিনা বেগম ও তার সহযোগী জাহানারা বেগমকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে।মুখ ঝলসে যাওয়া ওই মা বর্তমানে ভূরুঙ্গামারী সরকারি  হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

 

হাসিনা বেগমের স্বামী রাসেদুন্নবী বুলু জানান,হাসিনা বেগম অনেক দিন যাবত অসুস্থতায় ভুগছিলেন।এর ভিতরে নাগেশ্বরী উপজেলার উত্তর ব্যাপারী এলাকা থেকে ছকিনা বেগম নামের এক মহিলা কবিরাজ প্রতিবেশী আমিনুরের বাড়িতে চিকিৎসা দিতে আসতো।সোমবার হাসিনা বেগমকে চিকিৎসার জন্য ওই কবিরাজের কাছে নেয়া হয়।চিকিৎসার নামে কবিরাজ তার স্ত্রীকে নির্যাতন করেছে বলে জানায়।

বুলু জানায় আমার স্ত্রীর সারা মুখে ফোসকা উঠেছে।শরীরে মারের দাগ রয়েছে।সে যদি সুস্থ না হয় কবিরাজের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেব।

 

ভূরুঙ্গামারী হাসপাতালের জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান,হাসিনা বেগমের মুখমন্ডলে অধিকাংশই ঝলসে গেছে।প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে এসিড জাতীয় কোনো পদার্থ ছোঁড়া হয়েছে।তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

ভূরুঙ্গামারী থানার অফিসার্স ইনচার্জ আলমগীর হোসেন জানান,এলাকাবাসী এক মহিলা কবিরাজ ও তার সহযোগীকে আটক করে পুলিশকে দিয়েছে।লিখিত অভিযোগ পেলে আইনিের ব্যবস্থা নিবো।