ঝিকরগাছায় দ্বিধাবিভক্ত আওয়ামী লীগের নেতারা দীর্ঘদিন পরে এক মঞ্চে

যশোরের ঝিকরগাছায় দ্বিধাবিভক্ত আওয়ামী লীগের নেতারা দীর্ঘদিন পরে এক মঞ্চে উঠেছেন।

 

মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) স্থানীয় সাংসদের কার্যালয় প্রাঙ্গণে আয়োজিত ‘কর্মী সভায়’ উপজেলা আওয়ামী লীগের ৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির ৫ নেতাই বক্তব্য দেন। এতে ক্ষমতাসীন দলটির নেতা-কর্মীদের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে।

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগের ব্যানারে কর্মী সভার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন যশোর-২ (চৌগাছা-ঝিকরগাছা) আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল (অব.) ডাক্তার নাসির উদ্দিন।

 

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম মুকুলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুছা মাহমুদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন অপর তিন নেতা সহসভাপতি মোস্তফা আনোয়ার পাশা জামাল, চৌধুরী রমজান শরীফ বাদশা ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মুসা, সাবেক দফতর সম্পাদক শাহীনুল কবির, অ্যাড. আব্দুল কাদের আজাদ, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক শেখ নাসিমুল হাবিব সিপার, আমানুল কাদীর টুল্লু, মোর্তজা ইসলাম বাবু, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাহানা আক্তার।

 

উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের সহসভাপতি আজহার আলী, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক ছেলিমুল হক সালাম, ইলিয়াস মাহমুদ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ, যুবলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম বাপ্পী, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম রেজা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লুবনা তাক্ষী, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ এর যশোর জেলা শাখার যুগ্নআহবায়ক শাওন রেজা খোকা, যুবলীগ নেতা জুলফিকার আলী ভুট্টো, পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক একরামুল হক খোকন, যুগ্ম-আহ্বায়ক কামরুজ্জামান মিন্টু, মনিরুল আলম মিশর, আলিমুল মৃধা, উপজেলা তাঁতী লীগের সভাপতি আলমগীর হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এহসানুল হাবিব শিপলু, সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন।

 

২০১৪ সালের ১৮ ডিসেম্বর ঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে জাহাঙ্গীর আলম মুকুলকে সভাপতি ও মুছা মাহমুদকে সাধারণ সম্পাদক করে তিন বছরের জন্য কমিটি পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। সেই থেকে দীর্ঘ ছয় বছর ধরে উপজেলা আওয়ামী লীগ দিধাবিভক্তিতে রয়েছে। কেন্দ্রীয় ঘোষিত ও স্থানীয় কর্মসূচিগুলো এতোদিন ধরে আলাদাভাবে পালন করে আসছেন।

 

আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় উপজেলার ১১ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী ও বিদ্রোহী প্রার্থীরা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।