সঙ্গীকে মারধর করে কিশোরীকে অপহরণ

কুড়িগ্রাম থেকে গাজীপুরে বেড়াতে আসা এক যুবককে মারধর করে তার সঙ্গে থাকা কিশোরীকে অপহরণ করে নিয়ে গেছেন কয়েক যুবক। বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) ভোররাতে এ ঘটনা ঘটে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এদিন সন্ধ্যায়ও অপহৃতের সন্ধান পায়নি পুলিশ ও স্বজনরা। জানা গেছে, গাজীপুরে বেড়াতে আসেন কুড়িগ্রামের রাজীবপুর থানার মরিচাকান্দি এলাকার কোরবান আলীর ছেলে মো. মাহিম (১৮) ও একই এলাকার মোহাম্মদ সজীব মিয়ার মেয়ে রিক্তা আক্তার (১৬)। বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে তারা বাস থেকে গাজীপুরের কোনাবাড়ি এলাকায় নামেন। পরে রিকশায় চড়ে তারা চান্দনা চৌরাস্তা মোড়ে আসেন। সেখান থেকে ব্যাটারিচালিত একটি অটোরিকশায় চড়ে শহরের শিববাড়ি মোড়ের উদ্দেশ্যে রওনা হন তারা। বৃহস্পতিবার ভোর ৪টার দিকে তারা ঢাকা-গাজীপুর সড়কের গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ের পার্শ্ববর্তী গাজীপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কার্যালয়ের সামনে পৌঁছান। এ সময় তাদের রিকশার গতিরোধ করেন দুই যুবক। যুবকরা তাদের সার্ডি রোডের নির্জনস্থানে নিয়ে তাদের কাছ থেকে টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেন। পরে তারা মাহিমকে মারধর করে এবং অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে কিশোরী রিক্তাকে নিয়ে যান। ওই এলাকায় প্রায়ই ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন। জিএমপি’র উপ-কমিশনার (ক্রাইম) জাকির হাসান বলেন, ‘খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। বৃহস্পতিবার বার সন্ধ্যা পর্যন্ত নিখোঁজ মেয়েটির সন্ধান পাওয়া যায়নি। তাকে উদ্ধারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তবে মেয়েটির সঙ্গে কী সম্পর্ক রয়েছে সে ব্যাপারে ছেলেটি অসংলগ্ন কথাবার্তা বলছেন। এ ব্যাপার আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।’ আমিনুল ইসলাম/ইএ

সঙ্গীকে মারধর করে কিশোরীকে অপহরণ

কুড়িগ্রাম থেকে গাজীপুরে বেড়াতে আসা এক যুবককে মারধর করে তার সঙ্গে থাকা কিশোরীকে অপহরণ করে নিয়ে গেছেন কয়েক যুবক। বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) ভোররাতে এ ঘটনা ঘটে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এদিন সন্ধ্যায়ও অপহৃতের সন্ধান পায়নি পুলিশ ও স্বজনরা।

জানা গেছে, গাজীপুরে বেড়াতে আসেন কুড়িগ্রামের রাজীবপুর থানার মরিচাকান্দি এলাকার কোরবান আলীর ছেলে মো. মাহিম (১৮) ও একই এলাকার মোহাম্মদ সজীব মিয়ার মেয়ে রিক্তা আক্তার (১৬)। বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে তারা বাস থেকে গাজীপুরের কোনাবাড়ি এলাকায় নামেন। পরে রিকশায় চড়ে তারা চান্দনা চৌরাস্তা মোড়ে আসেন। সেখান থেকে ব্যাটারিচালিত একটি অটোরিকশায় চড়ে শহরের শিববাড়ি মোড়ের উদ্দেশ্যে রওনা হন তারা।

বৃহস্পতিবার ভোর ৪টার দিকে তারা ঢাকা-গাজীপুর সড়কের গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ের পার্শ্ববর্তী গাজীপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কার্যালয়ের সামনে পৌঁছান। এ সময় তাদের রিকশার গতিরোধ করেন দুই যুবক। যুবকরা তাদের সার্ডি রোডের নির্জনস্থানে নিয়ে তাদের কাছ থেকে টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেন। পরে তারা মাহিমকে মারধর করে এবং অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে কিশোরী রিক্তাকে নিয়ে যান। ওই এলাকায় প্রায়ই ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন।

জিএমপি’র উপ-কমিশনার (ক্রাইম) জাকির হাসান বলেন, ‘খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। বৃহস্পতিবার বার সন্ধ্যা পর্যন্ত নিখোঁজ মেয়েটির সন্ধান পাওয়া যায়নি। তাকে উদ্ধারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তবে মেয়েটির সঙ্গে কী সম্পর্ক রয়েছে সে ব্যাপারে ছেলেটি অসংলগ্ন কথাবার্তা বলছেন। এ ব্যাপার আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।’