বেলের যত উপকারিতা

বেলের শরবত পছন্দ করে না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। এটি ছোট-বড় সবার কাছেই অতি পরিচিত।  গরমে এক গ্লাস বেলের শরবত খেলে নিমিষেই প্রাণ জুড়িয়ে যায়। নানা গুণাগুণের জন্য আমরা বেল খেয়ে থাকি। ...

বেলের যত উপকারিতা

বেলের শরবত পছন্দ করে না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। এটি ছোট-বড় সবার কাছেই অতি পরিচিত।  গরমে এক গ্লাস বেলের শরবত খেলে নিমিষেই প্রাণ জুড়িয়ে যায়। নানা গুণাগুণের জন্য আমরা বেল খেয়ে থাকি। বেলে আছে নানা ঔষধি গুণ, যা আমাদের দেহের অনেক উপকার করে থাকে।
 
দেখে নেওয়া যাক বেলের যত উপকারিতা...
 
বেলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, এ, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস ও পটাসিয়াম। বেলে প্রচুর পমিাণ ভিটামিন সি থাকে, যা স্কার্ভি রোগ প্রতিরোধ করে। এটি প্রাকৃতিক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা আমাদের দেহের প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে এবং সর্দি-কাশি ও ছোঁয়াচে রোগ থেকে বাঁচিয়ে রাখে।
 
ভিটামিন এ আমাদের চোখের দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখে, রাতকানা রোগ প্রতিরোধ করে। ডায়রিয়া ও আমাশয় রোগ সারিয়ে তোলে। অন্ত্রের কৃমিসহ নানা রোগজীবাণু ধ্বংস করে। নিয়মিত বেল খেলে এর ল্যাকটিভগুণ কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয় এবং মুখের ব্রণ দূর করে ও ত্বক ভালো থাকে।
 
বেল পাকস্থলীর আলসারসহ নানা সমস্যা দূর করে। বেলের উপাদান মিউকাস মেমব্রেনের গঠনে সহায়তা করে এবং চামড়ার সৌন্দর্য বাড়িয়ে তোলে। বেলের ভিটামিন বি১ ও বি২ হৃৎপিণ্ড ও লিভার ভালো রাখতে সাহায্য করে।
 
নিয়মিত বেল খেলে কোলন ক্যান্সার হওয়ার প্রবণতা কমিয়ে দেয়। বেলে থাকে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার বা আঁশ, যা মুখের ব্রণ সারাতে সাহায্য করে।
 
যাদের পাইলস আছে, তাদের জন্য নিয়মিত বেল খাওয়া উপকারী। বেলের পুষ্টি উপাদান চোখের বাহ্যিক ও অভ্যন্তরীণ অঞ্চলগুলোর পুষ্টি জোগায়। ফলে চোখ যাবতীয় রোগ থেকে রক্ষা করে। বেলের শাঁস ত্বককে সূর্যরশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রক্ষা করে এবং ত্বকের স্বাভাবিক রং বজায় রাখে।