ভাড়াটিয়া বাড়িওয়ালার স্ত্রীকে হত্যা করে পালাল !

বাড়ির মালিককে কৌশলে ওষুধ খাইয়ে অচেতন করে তার স্ত্রীকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে এক ভাড়াটিয়ার বিরুদ্ধে। আজ ভোরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার ঝাউচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ভাড়াটিয়া বাড়িওয়ালার স্ত্রীকে হত্যা করে পালাল !

নিহত হোসনে আরার ছেলে আল আমিন জানান, রংপুরের হারুন অর রশিদ ও তার স্ত্রী সুলতানা স্থানীয় একটি কারখানায় চাকরি করেন। পাঁচ মাস আগে তারা আমাদের বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছে। ভাড়াটিয়া হারুন অর রশিদের সঙ্গে আমার বাবার সুসম্পর্ক ছিল। 

বিশ্বস্ত হওয়ায় আমাদের বাসায় তারা সব সময় যাওয়া আসা করতেন। আমার মা কোথায় টাকা ও স্বর্ণালংকার রাখত সব কিছুই জানতেন ভাড়াটিয়ার স্ত্রী সুলতানা। শনিবার রাতে হারুন অর রশিদ আমার বাবা ও মায়ের সঙ্গে গল্প করে বাবাকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে অচেতন করে। পরে মাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে ঘরে থাকা স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।

সোনারগাঁ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা (ওসি) মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান বলেন, ধারণা করা হচ্ছে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে আল আমিন বাদী হয়ে থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।