দামুড়হুদায় করোনা উপসর্গ নিয়ে আরো দুই জনের মৃত্যু

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় করোনার উপসর্গ নিয়ে আরো দুই জনের মৃত্যু হয়েছে।মৃত ব্যক্তিরা হলেন,দামুড়হুদার সীমান্তবর্তী কার্পাশডাঙ্গা ইউনিয়নের কুতুবপুর গ্রামের আমজাদ হোসেন ও একই ইউনিয়নের জাহাজপোতা গ্রামের নুরুল ইসলাম। আজ শনিবার সকালের দিকে এরা করোনার উপসর্গ নিয়ে নীজ নীজ বাড়ীতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারাযায়।এ নিয়ে গত চাঁরদিনে ৪ দিনে মৃত্যুর সংখা ৪জনে দাড়ালো। আক্রান্ত ও মৃত্যুও হার বেড়ে যাওয়ায় আজ শনিবার বেলা ১১টায় উপজেলা কমিটির জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দামুড়হুদায় করোনা উপসর্গ নিয়ে আরো দুই জনের মৃত্যু

এই সভায় আরো উপজেলার সীমান্তবর্তী পারকৃষ্নপুর-মদনা ইউনিয়নের নাস্তিপুর,ঝাঁঝাডাঙ্গা,বড়বলদিয়া ও ছোট বলদিয়াসহ ৬টি ও কুড়–লগাছি ইউনিয়নে সীমান্ত সংলগ্ন ৩টি গ্রামে নতুন করে ৯টি গ্রামে  লকডাউনের সিদ্ধান্ত হয়। এরআগে কার্পাশডাঙ্গা ইউনিয়নের ৭টি গ্রামে লকডাউন করা হয়।এছাড়াও লকডাউন এলাকার সকল চায়ের দোকান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবু হেলা মোহাম্মদ জামাল শুভ জানান,চলতি মাসের দুই তারিখে রাতে করোনা উপসর্গ নিয়ে দুইজন মারাযায়।পরে তাদের নমুনা পরীক্ষা করলে তা  পজেটিভ আসে। একই ভাবে আজ শনিবার সকালে সীমান্তবর্তী কুতুবপুর গ্রামের আমজাদ হোসেন ও জাহাজপোতা গ্রামের নুরুল ইসলাম নামে দুইজন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছে তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। 
এদিকে করোনা পরিস্থিতি দিন দিন ভয়াবহ হওয়ায় আজ উপজেলা কমিটি জরুরী সভা করেছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন,উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুদীপ্ত কুমার সিংহ।
প্রধান অতিথী ছিলেন কমিটির উপদেষ্টা চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি হাজী আলি আজগার টগর। বিশেষ অতিথি ছিলেন,উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলি মুনছুর বাবু, দর্শনা পৌর মেয়র মতিয়ার রহমান। করোনা প্রতিরোধে আরো নতুন করে আগামী কাল থেকে ৪টি গ্রামে লকডাউন,সকল চায়ের দোকান ১৪দিনের জন্য বন্ধ রাখার জন্য সুপারিশ করেন কমিটির উপদেষ্টা ও চুয়াডাঙ্গা-২আসনের সংসদ সদস্য হাজী আলি আজগার টগর। এছাড়াও ভারত -থেকে যেন কেউ আসা-যাওয়া না করে সে বিষয়ে পুলিশ বিজিবি ও ইউপি চেয়ারম্যন দের যথাযত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলা হয়। 
এসময় আরো  উপস্থিত ছিলেন,দামুড়হুদা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল মতিন,পিআইও আশরাফুল হোসেন ,উপজেলা প্রকৌশলী খালিদ হাসান,পারকৃষœপুর-মদনা ইউপি চেয়ারম্যান এস এম জাকারিয়া আলম,জুড়ানপুর ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন,কার্পাশডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান,কুড়–লগাছি ইউপি চেয়ারম্যান শাহ এনামুল করিম ইনু,দামুড়হুদা সদও ইউপি চেয়ারম্যান শরিফুল আলম মিল্টন,নাটুদা ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলম শফি,নতিপোতা ইউপি চেয়ারম্যান ইয়ামিন আলি,দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল খালেক ও দর্শনা থানার অফিসার আচার্জ মাহাবুবুর রহমান কাজলসহ দামুড়হুদা ও দর্শনা প্রেসক্লাবের সাংবাদিকবৃন্দু। 
এর আগে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবু হেনা মোহাম্মদ জামাল শুভ জানান,উপজেলায় বর্তমানে ৮১জন রোগী প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম আইসোলেশনে আছে।এপর্যন্ত  মারা গেছে ১৮জন।