মোংলায় মঙ্গলবার ৪৯ জনের মধ্যে ৩০ জনের করোনা সনাক্ত, সনাক্তের হার ৬১ ভাগ

মোংলায় বেড়েই চলেছে করোনা সংক্রমণ ও সনাক্তের হার। মঙ্গলবার ৪৯ জনের মধ্যে ৩০ জনের করোনা পজেটিভ সনাক্ত হয়েছে। মঙ্গলবারের সনাক্তের হার প্রায় ৬১ ভাগ। এর আগে সোমবার এর হার ছিল ৫৪ ভাগ এবং রবিবার ছিল ৫৩ ভাগ। মঙ্গলবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৪৯ জন করোনা পরীক্ষার নমুনা দেন। তাদের মধ্যে র‍্যাপিড এ্যান্টিজেন টেস্টে ৩০ জন করোনা সনাক্ত হয়েছেন। হঠাৎ করে সংক্রমণ বাড়াতে গত ৩০ মে থেকে পৌর এলাকা জুড়ে করোনার কঠোর বিধি নিষেধ জারি করে স্থানীয় প্রশাসন। ৩০ মে থেকে ৮ জুন পর্যন্ত এখানে করোনা পরীক্ষা করিয়েছেন ২৩৫ জন। এরমধ্যে সনাক্ত হয়েছেন ১৪১ জন।

মোংলায় মঙ্গলবার ৪৯ জনের মধ্যে ৩০ জনের করোনা সনাক্ত, সনাক্তের হার ৬১ ভাগ
বাগেরহাট জেলা সিভিল সার্জন ডা: কেএম হুমায়ুন কবির বলেন, বর্তমানে মোংলায় করোনা সনাক্তের হার শতকরা ৬০ ভাগ। তিনি বলেন, আগের তুলনায় সনাক্তের হার কমেছে, কারণ এর আগে ৭১ ভাগ পর্যন্তও সনাক্তের হার ছিল। আশা করছি চলতি এ সপ্তাহের মধ্যে সনাক্তের হার আরো কমে আসবে। মুলত চলতি সপ্তাহ গেলে বুঝা যাবে এখানকার প্রকৃত অবস্থা, কমছে নাকি বাড়ছেই। না কমলেও তার কারণ কি হতে পারে সেটি আমরা খুঁজে বের করে পরবতর্ী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।  
এদিকে চলমান কঠোর বিধি নিষেধের ১০ম দিনেও পৌর শহরের প্রবেশ মুখগুলোতে লোকসমাগম ও যান চলাচল ঠেকাতে পুলিশকে হিমশিম খেতে দেখা গেছে। পৌর শহরে ভ্রাম্যমান মোবাইল কোর্ট, কোস্ট গার্ড, পুলিশ ও আনসারের টহল থাকায় শহর এলাকায় বিধি নিষেধ কিছু মানা হলেও মুলত তা মানা হচ্ছেনা উপজেলার বাকী ৬টি ইউনিয়নে। ইউনিয়নগুলোতে বিধি নিষেধের তেমন কোন বালাই নেই। পৌর শহরের প্রবেশমুখ কলেজ রোড, কুমারখালী ও কাইনমারী এলাকা দিয়ে বিভিন্ন ইউনিয়নের লোকজন ও গাড়ী অবাদে চলাচল করছে। চলমান বিধি নিষেধ না মানায় এ কয়দিনে ভ্রাম্যমান মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ৪৯টি মামলায় ৫৫ জনকে ৩২ হাজার ১শ টাকা নগদ জরিমানা করা হয়েছে। 
বিধি নিষেধের মধ্যেও স্বাভাবিক রয়েছে মোংলা বন্দরের সকল কার্যক্রম। মঙ্গলবার বন্দরে থাকা ৯টি বিদেশী বাণিজ্যিক জাহাজের পণ্য ওঠানামা ও পরিবহণের কাজ চলেছে। বন্দরের পাশাপাশি বন্দর সংশ্লিষ্ট কাস্টমসসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমও স্বাভাবিক রয়েছে।