কঞ্চিপাড়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষকে নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচী

ফুলছড়ি উপজেলার মদনেরপাড়ায় বুধবার কঞ্চিপাড়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষকে নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে একই সময়ে মুখোমুখি দু-গ্রুপের মানববন্ধন ও অবস্থান ও প্রতিবাদ সভার কর্মসূচী পালিত হয়। দুপক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচী নিয়ে উত্তেজনার সৃষ্টি হলে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ দ্রুত হস্তক্ষেপ করে দু’পক্ষকে সরিয়ে দিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে।

কঞ্চিপাড়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষকে নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচী
কঞ্চিপাড়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষকে নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচী
অধ্যক্ষের পক্ষে গাইবান্ধা-বালাসী রোডে সচেতন নাগরিক কমিটি অবস্থান ও প্রতিবাদ সভা করে এবং শুরুতেই বক্তব্য রাখেন কঞ্চিপাড়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ এটিএম রাশেদুজ্জামান রোকন। অন্যদিকে কালিবাজার রোডে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করে কঞ্চিপাড়া ইউনিয়ন সার্বিক উন্নয়ন কমিটি। এতে বক্তব্য রাখেন ওই কমিটির সভাপতি আশরাফুল ইসলাম বাবু। এই নিয়ে দু’পক্ষের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিলে সৃষ্ট যে কোন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিএম সেলিম পারভেজ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু রায়হান দোলন, থানা অফিসার ইনচার্জ কাওছার আলী ও কঞ্চিপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান লিটন মিয়াসহ বিপুল সংখ্যক পুলিশ। এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম সেলিম পারভেজ উভয় পক্ষকে নিবৃত্ত করে বক্তব্য রাখেন। তিনি উল্লেখ কলেজের উন্নয়নের স্বার্থে উভয় গ্রুপকে ধৈর্য ধারণের পরামর্শ দেন এবং এব্যাপারে সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।  
বুধবার সকাল ১১টায় গাইবান্ধা-বালাসী সড়কের মদনেরপাড়া এলাকায় মানববন্ধন কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেয় কঞ্চিপাড়া সার্বিক উন্নয়ন কমিটি। অপরদিকে কঞ্চিপাড়া ইউনিয়ন সচেতন নাগরিক কমিটির ব্যানারে আর একটি সংগঠন কঞ্চিপাড়া ডিগ্রী কলেজ এবং কলেজের অধ্যক্ষের নামে নানা মিথ্যা বানোয়াট অপপ্রচারের প্রতিবাদে একই দিন সকাল ১০টায় ওই স্থানে অবস্থান কর্মসূচী ও প্রতিবাদ সভার ঘোষণা দেয়।