চুয়াডাঙ্গার আরো ৩৭ জন করোনা রোগী শনাক্ত, নতুন শনাক্ত রোগীর সিংহভাগ সদর ও দামুড়হুদায়

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার ১৬ টি গ্রামে ‘লকডাউন’ চলছে লকডাউনের পরদিন চুয়াডাঙ্গা জেলায় সক্রিয় পজিটিভ রোগীর সংখ্যা ছিলো ১৬৩ জন। যা নমুনা পরীক্ষার ২০.৩৭%। বুধবার রাত পর্যন্ত আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২৪১ জন । যা নমুনা পরীক্ষার শতকরা ৪৬.২৫%।

চুয়াডাঙ্গার  আরো ৩৭ জন করোনা রোগী  শনাক্ত, নতুন শনাক্ত রোগীর সিংহভাগ সদর ও দামুড়হুদায়
প্রতীকী ছবি

করোনা সংক্রমণ রোধে পুলিশ, বিজিবির সাথে একযোগে কাজ করছেন জন প্রতিনিধিরা। 
উল্লেখ্য, চলতি মাসের ২ তারিখে সীমান্ত ঘেঁষা ৭টি গ্রামে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল। পরে ৬ জুন নতুন করে আরও ৯টি গ্রাম যোগ হওয়ায় মোট গ্রামের সংখ্যা হলো ১৬।
 
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের করোনা সংক্রান্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডা :আওলিয়ার রহমান জানান, চুয়াডাঙ্গায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত আরো ৩৭ জন  নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে সদর উপজেলায় ১৭ জন ,আলমডাঙ্গা উপজেলায় ৪ জন, দামুড়হুদা উপজেলায় ১৩ জন ও জীবননগর উপজেলায় ৩ জন রয়েছে। 
 এ নিয়ে জেলায় ২ হাজার ১৫৪ জন আক্রান্ত হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮৪৩ জন । বর্তমানে আক্রান্ত আছে২৪১ জন ,এর মধ্যে হাম আয়সোলেশনে আছে ২১৫ জন, হাসপাতালে আছে ২৩ জন ও ঢাকায় রেফার্ডে আছে ৩ জন । 
 এ দিকে যেসব বাড়িতে করোনা ভাইরাস  রোগী রয়েছেন,ওসব বাড়িতে লাল পতাকা লাগিয়ে সতর্ক করার সরকারি নির্দেশনা রয়েছে। এরপরও সর্বক্ষেত্রে তা মানা হচ্ছে না । এ বিষয়ে চুয়াডাঙ্গা পৌর সভার ইন্সপেক্টর বলেছেন,অনেকের বাড়িতে লাল পতাকা লাগাতে গেলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হচ্ছে।