চুয়াডাঙ্গায় মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্বোধন

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চুয়াডাঙ্গার মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইসলামের প্রচার ও প্রসার এবং মসজিদকে জ্ঞান চর্চার কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে মোট ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ করছে সরকার।

চুয়াডাঙ্গায় মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্বোধন

এই প্রকল্পের আওতায় প্রথম ধাপে নির্মিত ৫০টি মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একসঙ্গে এতগুলো মসজিদ নির্মাণের ঘটনা বিশ্বে বিরল বলে জানিয়ে জানিয়েছেন প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে একসঙ্গে প্রথম পর্যায়ে নির্মিত এসব মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।শুধু নামাজ আদায় নয়, মসজিদ হবে গবেষণা ইসলামি সংস্কৃতি ও জ্ঞানচর্চা কেন্দ্র। হারিয়ে যাওয়া ইসলামের চিরায়ত এই ঐতিহ্যকে ধারণ করে দৃষ্টিনন্দন এসব মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার। তারই ধারাবাহিকতায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চুয়াডাঙ্গার মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রথম ধাপে সারাদেশের ৫০টি মডেল মসজিদের সাথে চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের পানি উন্নয়ন বোর্ড চত্বরের এ মসজিদটি উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী । বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জেলার সরকারি পদস্থ কর্মকর্তা, রাজনীতিক,সুশীল সমাজের প্রতিনিধি সহ এলাকার মুসল্লীদের উপস্থিতিতে এটি উদ্বোধন করা হয়।

চুয়াডাঙ্গার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মোঃ নজরুল ইসলাম সরকার, পুলিশ সুপার মো:জাহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মনিরা পারভীন, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাদিকুর রহমান,চুয়াডাঙ্গা ইসলামী ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক এবিএম রবিউল ইসলাম,জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন, সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সী আলমগীর হান্নান প্রমুখ।

সরকারী অর্থায়নে সারা বাংলাদেশে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মীত হচ্ছে তার মধ্যে চুয়াডাঙ্গার ১টি। চারতলা বিশিষ্ট এ মডেল মসজিদটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ১৪ কোটি ১৪ লাখ টাকা। আগামীকাল শুক্রবার থেকে এ মসজিদে জুম্মার নামাজের মাধ্যমে এ মসজিদের কার্যক্রম শুরু হবে।