দাদন ব্যবসায়ী মেরে ভ্যান কেড়ে নেয় ,অপমানে চালকের আত্মহত্যা

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে দাদন ব্যবসায়ীর টাকার চাপে জাহাঙ্গীর শেখ নামে এক ভ্যানচালক আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সন্ধ্যায় বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। জাহাঙ্গীরের বাড়ি গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার গুমানিগঞ্জ ইউনিয়নের নাগেরভিটা গ্রামে।

দাদন ব্যবসায়ী মেরে ভ্যান কেড়ে নেয় ,অপমানে চালকের আত্মহত্যা

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, এক বছর আগে স্থানীয় ‘নাগের ভিটা’ সমিতি থেকে সুদে ১০ হাজার টাকা নেন জাহাঙ্গীর শেখ। এর মধ্যে ১১ মাসের সুদের টাকা পরিশোধ করেন। এক মাসের সুদের এক হাজার টাকা বৃহস্পতিবার দেওয়ার কথা ছিল। তিনি সেই টাকা দিতে ব্যর্থ হন।

এদিকে সকালে সবজিবোঝাই ভ্যান নিয়ে বগুড়ার মহাস্থান হাটে যাচ্ছিলেন জাহাঙ্গীর। কিছুদূর যাওয়ার পর সুদ ব্যবসায়ী জহুরুল ইসলামসহ ৫-৬ জন তার পথরোধ করেন। এ সময় জাহাঙ্গীর সুদের এক হাজার টাকা এক সপ্তাহ পরে দিতে চান। তারা জাহাঙ্গীরের কথা না শুনে তাকে চড়-থাপ্পর ও অপমান করেন। পরে তার সব সবজি মাটিতে ফেলে ভ্যানটি নিয়ে যায় সুদ ব্যবসায়ীরা।

ঘটনার পর অপমান সহ্য করতে না পেরে বাড়িতে গিয়ে বিষাক্ত ট্যাবলেট খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন জাহাঙ্গীর। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সন্ধ্যার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান জাহাঙ্গীর।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)  মেহেদি হাসান ঢাকা পোস্টকে জানান, ঘটনাটি শুনেছি। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ছাড়া ভ্যানটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।